শরীরের যে ৪টি স্থান ১ মিনিট চেপে ধরলে সেরে যাবে অনেক রোগ! যেভাবে চেপে ধরবেন…

শরীরের যে ৪টি স্থান ১ মিনিট চেপে ধরলে সেরে যাবে অনেক রোগ! যেভাবে চেপে ধরবেন…

শরীরের যে ৪টি স্থান ১ মিনিট চেপে ধরলে সেরে যাবে অনেক রোগ! যেভাবে চেপে ধরবেন… – বর্তমানে আমাদের শরীরে নানা প্রকার রোগের প্রকোপ দেখা দেয়। দূষণ, বাজে খাদ্যাভাস, শরীরিক ব্যয়াম না করা ইত্যাদি কারণে রোগে জর্জরিত মানব শরীর। আপনি শরীরের এই ৪টি স্থান ১ মিনিট চেপে ধরুন, এরপর দেখুন কী হয়? সেরে যাবে অনেক রোগ!

ঘুম না হওয়ার কারণে আপনি কি ঘুমের ওষুধ খান? নিয়মিত ঘুমের ওষুধ খাওয়ার কিছু পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া রয়েছে যা দীর্ঘস্থায়ী হয়। সবচয়ে উত্তম হয়ে যদি কোন প্রাকৃতিক উপায়ে ঘুমকে গভীর করে ফেলতে পারেন। আপনি কি অ্যাকুপ্রেসার বদলে দিচ্ছে সেই রকম প্রাকৃতিক চিকিকৎসার অন্যতম একটি পন্থা।

আমেরিকার টাফটস বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষক সম্প্রতি একটি গবেষনা করতে গিয়ে তারা ঘোষনা দিয়েছেন যে, সারাবিশ্বে প্রতি ৩জনে ১ জন করে এই অনিদ্রজনিত সমস্যায় ভুগে থাকেন।উদ্বেগ, দুশ্চিন্তা, শরীরে ব্যথা ইত্যাদি আাধুনিক জীবনে এই বিষয়গুলি ঘুমের সমস্যার অন্যতম প্রধান কারণ হিসেবে পরিচিত। এছাড়াও অতিরিক্ত শর্করা জাতীয় খাবার খাওয়ার ফলেও রাত্রে ঘুমের সমস্যা সৃষ্টি করে থাকে। ঘুমের সমস্যা হতে মুক্তি পাওয়ার জন্য অনেকে ঘুমের ওষুদের উপর নির্ভর হয়ে যান যা মোটেও উচিৎ নয়।

নিয়মিত ঘুমের ওষুধ খাওয়ার যে কুপ্রভাব তা হয়ত অনেকে জানি না। তবে জানেন কি অনেক সময় ঘুমের ওষুধে সুফল স্থায়ীভাবে পাওয়া সম্ভব হয় না। এর থেকে মুক্তির উপায় হলো প্রাকৃতিক উপায়ে ঘুমকে গভীর করা। আর সেই রকম একটি চিকিৎসা পদ্ধতি হলো অ্যাকুপ্রেসার পন্থা।

অ্যাকুপ্রেসার হলো চীনের প্রচীনতম চিকিৎসা পদ্ধতি। যা চীনে এখন পর্যন্ত ব্যাপক জনপ্রিয়। কেননা এই চিকিৎসা পদ্ধতি কার্যকর এবং এর কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই। মূলত আ্যাকুপ্রেসার হলো এক ধরণের বিকল্প চিকিৎসা পদ্ধতি যা শরীরের কিছু অংশকে চিহ্নিত করে এবং সেই সব স্থানে পরিমিত চাপ বা প্রেসার এর মাধ্যমে রোগ নিরাময় করা সম্ভব।

গবেষক দলের ডাক্তার মেয়ংসুলি জানান, শরীরের বিশেষ ৪টি স্থানে দিনে যদি ১ মিনিট করে করে আঙ্গুলের সহায়তায় মৃদৃ চেপে রাখা যায়, তাহলে নিশ্চিত রাতের ঘুম গভীর করে তোলা সম্ভব। চলুন তবে জেনে নেওয়া যাক সে ৪টি স্থানের নাম ও চেপে রাখার পদ্ধতি।

১। কব্জির হাড়ের ঠিক পাশে: উপরের ছবিতে চিহ্নিত অংশে অন্য হাতের বৃদ্ধাঙ্গুলি দিয়ে ১ মিনিট এর জন্য মৃদুভাবে চেপে ধরুন। এপর ২ হাতের কব্জিতে ঠিক একইভাবে চেপে ধরবেন। ২। হাতের তালুর ঠিক ৩ আঙ্গুল নীচে কব্জির মাঝামাঝি: উপরের ছবি দেখে হাতের তালুর ৩ আঙ্গুল নীচের অংশটি মার্ক করুন, এরপর ২ হাতের এই অংশে ১ মিনিটের জন্য মৃদু চেপে ধরে রাখুন।

৩। ২ ভ্রুর ঠিক মাঝের অংশে: আপনি যদি ২ ভ্রুর ঠিক মাঝের অংশে ১ মিনিট চেপে ধরে থাকেন তাহলে দারুন কর্যকর ভূমিকা পালন করবে। ৪। বুকের মধ্যেখানে: ঠিক পাঁজরের একাবের নীচের হাড় থেকে ঠিক ৪ আঙ্গুল উপরে বুকের ঠিক মাঝ বরাবর চেপে ধরুন ১ মিনিটের জন্য। সবচেয়ে উত্তম ফলফল পেতে ছবিতে বর্ণিত ৩ ও ৪ নম্বর অংশ দুটি এক সাথে চেপে ধরা। একসাথে চেপে ধরলে তা মহৌষধের ন্যায় কাজ করবে।

আর যদি দিনে ১ বার ১ মিনিট করে ব্যয় করতে হবে শরীরের এই ৪টি স্থানে। অর্থাৎ মোট ৪ মিনিট ব্যয় করতে হবে আপনাকে। আর এই ৪ মিনিটেই নিশ্চি করে ফেলতে পারবেন রাতের গভীর ঘুম। এমনি দাবী করছেন ডাক্তার ডাক্তার মেয়ংসুলি। তবে আর দেরি কেন আপনি এখুনি ট্রাই করে দেখতে পারেন।

এ সম্পর্কিত আরও পোস্ট

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button
error: Content is protected !!
Close
Close