আবেদন শেষে ৩০ দিনের মধ্যে বেসরকারি শিক্ষক নিয়োগের ফল

আবেদন শেষে ৩০ দিনের মধ্যে বেসরকারি শিক্ষক নিয়োগের ফল

দৈনিক শিক্ষাবার্তাঃ বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ৫৪ হাজার শিক্ষক নিয়োগের ফলাফল আবেদন শেষের ৩০ দিনের মধ্যেই প্রকাশ করা হবে বলে জানিয়েছেন এনটিআরসিএ চেয়ারম্যান আশরাফ উদ্দিন। ফলাফল উত্তীর্ণ প্রার্থীদের মোবাইলে এসএমসের মাধ্যমে জানিয়ে দেওয়া হবে।

আগামী ৩০ এপ্রিল আবেদন করার শেষ দিন। বেসরকারি স্কুল কলেজ মাদ্রাসায় ৫৪ হাজার শিক্ষক পদে নিয়োগ পেতে এখন পর্যন্ত ৪১ লাখের বেশি আবেদন জমা হয়েছে। আগামী ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত আবেদনের সুযোগ থাকায় এসংখ্যা আরো অনেক বাড়বে। মঙ্গলবার এনটিআরসিএ চেয়ারম্যান আশরাফ উদ্দিন একথা নিশ্চিত করেছেন।

গত ১ এপ্রিল বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ৫৪ হাজার শিক্ষক শুন্যপদে নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে। ৪ এপ্রিল থেকে আবেদনের সুযোগ পায় প্রার্থীরা। প্রতিটি আবেদনের জন্য ১০০ টাকা হারে ফি দিতে হয় প্রার্থীদের। একজন প্রার্থী যত ইচ্ছা ততটি প্রতিষ্ঠানে আবেদন করতে পারেন। একেকজন প্রার্থী ৭০/৮০ টি প্রতিষ্ঠানে আবেদন করেছে বলে জানা গেছে।

আবেদন শেষে ৩০ দিনের মধ্যে বেসরকারি শিক্ষক নিয়োগের ফল৫৪ হাজার শিক্ষক পদে ৪১ লাখ আবেদন!শিক্ষার্থীদের আর অটোপাশ দেওয়া হবে নাঃ শিক্ষা সচিবশিক্ষিকা মাকে বাঁচাতে পিঠে সিলিন্ডার বেঁধে হাসপাতালে নিলেন ছেলেএইচএসসিতে বৃত্তি পাবে সাড়ে ১০ হাজার পরিক্ষার্থীএনটি আরসিএ চেয়ারম্যান বলেন, এপর্যন্ত ৪১ লাখের বেশি আবেদন জমা পড়েছে।

বিপুল সংখ্যক আবেদন করছে প্রার্থীরা। আগামী ৩০ এপ্রিল রাত ১২ টা পর্যন্ত আবেদন করতে পারবে প্রার্থীরা।তবে ৫৪ হাজার ৩০৪ টি পদের মধ্যে ২ হাজার ২০৭ টি পদ সংরক্ষন করা করেছে।

বাকী ৫২ হাজার ৯৭ টি পদে মেধাভুক্তরা আবেদন করতে পারবেন।ইতোমধ্যে, ১ এপ্রিল এই ৫২ হাজার ৯৭ টি পদের তালকা প্রকাশ করেছে এনটিআরসিএ।এরমধ্যে ৪৮ হাজার ১৯৯ টি এমপিওভুক্ত শুন্যপদ আছে। এবং নন এমপিও পদ ৬ হাজার ১০৫ টি।

এরমধ্যে ২ হাজার ২০৭ টি এমপিওপদ রিটে আবেদন কারীদের জন্য সংরক্ষন করা হয়েছে।আবেদন যাচাই বাছাইয়ের পর প্রতিটি পদের বিপরীতে চুড়ান্তভাবে একজনকে সুপারিশ করা হবে। নির্বাচিত প্রার্থীর মোবাইলে এসএমসের মাধ্যমে তাকে জানিয়ে দেওয়া হবে। ওয়েবসাইটে প্রার্থীর সুপারিশ পত্র প্রকাশ করা হবে।

এ সম্পর্কিত আরও পোস্ট

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button
Close
Close