ওষুধ নয়, ১১ রো’গের প্র’তিষেধক জাম্বুরা!

ওষুধ নয়, ১১ রো’গের প্র’তিষেধক জাম্বুরা!

জাম্বুরা খুবই পরিচিত একটি ফল। যা সব মৌসুমে পাওয়া যায় না। মৌসুমি এই ফলটি অনেকেরই পছন্দের তালিকায় রয়েছে। স্বাদ টক-মিষ্টি হওয়ায় খেতেও দারুণ লাগে জাম্বুরা। পুষ্টিগুণেও অনন্য এই ফলটি।

জাম্বুরা সাইট্রাস ফলগুলোর মধ্যে একটি। অন্যান্য সাইট্রাস ফলের ন্যায় জাম্বুরাতে উচ্চ পরিমাণে ভিটামিন-সি এবং ভিটামিন-বি রয়েছে। এছাড়া অন্যান্য পুষ্টি উপাদান তো রয়েছেই।

বেক্সিমকো ফার্মা লিমিটেড এর পুষ্টিবিদ আছিয়া পারভীন আলী শম্পা জাম্বুরা খাওয়ার জাদুকরী উপকারিতা স’ম্পর্কে জা’নিয়েছেন। চলুন জে’নে নেয়া যাক সেগুলো-

জাম্বুরা উচ্চ পরিমাণে বিটা ক্যারোটিন এবং ফোলিক এসিডের উৎস। আর এই দুটি উপাদানই গর্ভবতী মায়েদের জন্য উপকারী। সুতরাং গর্ভস্থ শি’শুর পুষ্টি নি’শ্চিত ক’রতে গর্ভকালীন সময়ে নিয়মিত জাম্বুরা খান।

জাম্বুরাতে রয়েছে ভিটামিন-এ, ভিটামিন-বি১, ভিটামিন-বি২, বায়োফ্লাভোনয়েডস, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, হেলদি ফ্যাট, প্রোটিন এবং এনজাইমস।জাম্বুরাতে থাকা ভিটামিন-সি দাঁতের ব্যাথা দূ’র ক’রতে এবং দাঁতের মাড়ি শ’ক্তিশালী ক’রতে সাহায্য করে। সুতরাং যাদের দাঁতের স’মস্যা বেশি তারা খাদ্য তালিকায় জাম্বুরা অন্তর্ভুক্ত করুন।

জাম্বুরাতে রয়েছে সাধারণ ঠাণ্ডা, জ্বর বা কাশি দূ’র করার প্রাকৃতিক রেমেডিস। সুতরাং একটু জ্বর, কাশি বা ঠাণ্ডা হলেই যারা মুঠো ভর্তি মেডিসিন খেয়ে অভ্যস্ত তারা জাম্বুরা খেলে খুব দ্রুত উপকার পাবেন।

জাম্বুরাতে রয়েছে উচ্চ পরিমাণে পটাশিয়াম যা র’ক্তচা’প নিয়ন্ত্রন ক’রতে এবং হার্টকে ভালো রাখতে জ’রুরি। এছাড়া জাম্বুরাতে উচ্চ পরিমাণে পেক্টিন রয়েছে যা আর্টারিয়াল ডিপোজিট ক্লিয়ার ক’রতে সাহায্য করে। ফলে হার্ট সু’স্থ থাকে।পানি পানের অভাব, ডিহাইড্রেশন এবং ইলেক্ট্রলাইটস ইম্ব্যালেন্সের কারণে আমাদের মাসেল ক্রাম্প বা পেশী টানের স’মস্যায় ভুগতে হয়। আর যাদের প্রায় মাসেল ক্রাম্প অর্থাৎ পেশীতে টান লাগে, তারা নিয়মিত জাম্বুরা বা জাম্বুরার রস খেতে পারেন। জাম্বুরা বেশ ভালো পরিমাণে ইলেক্ট্রলাইটস এবং তরল সরবরাহ ক’রতে পারে।

জাম্বুরাতে থাকা ভিটামিন-সি আয়রন শোষণে সাহায্য করে, ফলে যারা এনিমিয়া বা র’ক্ত স্বল্পতাতে ভু’গছেন তারা প্রতিদিন অন্ত’ত ১ কাপ জাম্বুরা খান।যাদের দে’হে উচ্চ পরিমাণে ইউরিক এসিড আছে তারা নিয়মিত জাম্বুরা খেলে ইউরিক এসিডের মাত্রা স্বা’ভাবিক হতে সাহায্য করে।

নিয়ম করে প্রতিদিন এক গ্লাস জাম্বুরার জুস খেলে স্কিন এবং চুলের স্বা’স্থ্য ভালো থাকে। জাম্বুরার অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সেল ড্যামেজ প্র’তিরো’ধ করে। ফলে বয়সের ছাপ দূ’র হয়। এছাড়া জাম্বুরাতে খেলে চুল থাকে সু’স্থ এবং সুন্দর।

জাম্বুরাতে উচ্চ পরিমাণে বায়োফ্লাভোনয়েডস রয়েছে যা ব্রেস্ট ক্যা’ন্সার, কোলন ক্যা’ন্সার এবং অগ্নাশয়ের ক্যা’ন্সার প্র’তিরো’ধ ক’রতে সাহায্য করে। পাশাপাশি দে’হের বিভিন্ন স্থানে ক্যা’ন্সার ছ’ড়িয়ে যাওয়া রো’ধ করে। যাদের দে’হে এল ডি এল বা ব্যাড কোলেস্টেরলের পরিমাণ বেশি তাদের জন্য জাম্বুরা ভীষণ উপকারী। জাম্বুরাতে থাকা ফাইবার কোলেস্টেরল কমাতে সাহায্য করে। এছাড়া এই ফাইবার ওজন কমাতে এবং কোষ্ঠকাঠিন্য কমাতেও সমান উপকারী।

এ সম্পর্কিত আরও পোস্ট

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button
Close
Close