যে খাবারগুলো এড়ি’য়ে গেলে স্থা’য়ীভাবে নি’রাময় হবে পাইলস!

যে খাবারগুলো এড়ি’য়ে গেলে স্থা’য়ীভাবে নি’রাময় হবে পাইলস!

আমাদের মধ্যে অনেকেই য’ন্ত্রণাদায়ক পাইলসের স’মস্যায় ভুগে থাকেন। নানাভাবে এর থেকে পরিত্রাণ পাওয়ার চেষ্টাও করেন। তবে জা’নেন কি, নিজেদের কিছু ভুলের কারণেই এর থেকে র’ক্ষা পাওয়া সম্ভব হচ্ছে না। আর সেটি হচ্ছে খাদ্যাভ্যাস ও অনিয়মিত জীবনযাত্রা।

পাইলস সাধারণত দুই প্রকার। প্রথমটি হলো এক্সটার্নাল পাইলস, যাকে ব্লাইন্ড পাইলসও বলে। দ্বিতীয়টি হলো ইন্টারনাল পাইলস, যাকে ব্লিডিং পাইলসও বলে। এই ইন্টার্নাল পাইলস খুবই বিপজ্জনক। কারণ এর থেকে প্রায়ই র’ক্তক্ষরণ হতে দেখা যায়। আর র’ক্তক্ষরণ দীর্ঘস্থায়ী হলে মলদ্বারে ক্যানসারও হতে পারে।

অনেকেই ভাবেন, এই রো’গটি বংশগত। তবে সবক্ষেত্রে এটা নাও হতে পারে। কারণ মলত্যা’গের প্রক্রিয়া যার মসৃণ হবে, সে কখনো এই স’মস্যায় ভুগবে না। তবে যদি মলত্যা’গের প্রক্রিয়া মসৃণ না হয়, তবে দেখা দিতে পারে এ ধ’রনের স’মস্যা। ফলে মলত্যা’গের সময় র’ক্তক্ষরণ হতে পারে, একই স’ঙ্গে অসহ্য ব্য’থাও হয়।

বিশেষজ্ঞদের মতে, খাদ্যাভ্যাসের পরিবর্তনের মাধ্যমে এই রো’গকে অনায়াসে দূ’র করা যায়। কারণ খাদ্যাভ্যাস পরিবর্তন হলেই দূ’র হবে কোষ্ঠকাঠিন্য, আর কোষ্ঠকাঠিন্যকে নিরাময় করা গেলেই দূ’র হবে পাইলস বা অর্শ। আপনি যদি এই রো’গে ভো’গেন, তবে সু’স্থ থাকতে এখনই পরিবর্তন করুন খাদ্যাভ্যাস এবং পরাম’র্শ নিন বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের। চলুন তবে জে’নে নেয়া যাক পাইলস এড়াতে কী ধ’রনের খাবার এড়িয়ে চলবেন-

তেলেভাজা খাবার বেশিরভাগ মানুষই প্যাকেটজাত খাবার বা তেলেভাজা জাতীয় খাবার বেশি পছন্দ করেন। চিকি’ৎসকদের মতে, আপনি যদি পাইলসের রো’গী হন, তবে আপনার উচিত ভাজা খাবার খাওয়া থেকে বিরত থাকা। কারণ এগুলো হ’জম ক্ষ’মতাকে দু’র্বল করে তোলে এবং পাইলসের স’মস্যাকেও বৃ’দ্ধি করে।

মাংস স্বা’স্থ্য বিশেষজ্ঞদের মতে, আপনি যদি কোষ্ঠকাঠিন্যতে ভো’গেন এবং অর্শের ফলে র’ক্তক্ষরণ হয়, তবে কিছু সময়ের জন্য মাংস খাওয়া ব’ন্ধ করুন। বিশেষ করে রেড মিট খাওয়া ছেড়ে দিন, পাশাপাশি দোকান থেকে কেনা মাংসজাতীয় বিভিন্ন খাবার এড়িয়ে চলুন।

মশলাযুক্ত খাবার স্বা’স্থ্য বিশেষজ্ঞদের মতে, পাইলসে আক্রা’ন্ত হলে মশলাযুক্ত খাবার খাওয়া এড়িয়ে চলতে হবে। অতিরি’ক্ত মশলাযুক্ত খাবার আপনার হ’জম ক্ষ’মতাকে দু’র্বল করে দিতে পারে, পাশাপাশি অর্শের ব্য’থাও বৃ’দ্ধি করে।

কফি ও চা আপনার পাইলস থাকলে কফি ও চা জাতীয় পানীয় এড়িয়ে চলুন। এগুলো পাইলসের স’মস্যাকে আরো বৃ’দ্ধি করে। সু’স্থ থাকতে পান ক’রতে পারেন গ্রিন টি।

বেকারি জিনিসপত্র প্রায় সব বেকারি আইটেম অপ’রিশোধ িত ময়দা ও চিনি দিয়ে তৈরি হয়। যদিও এগুলো সহজেই হ’জম করা যায়, কিন্তু এগুলো পাচনতন্ত্রের পক্ষে ভালো খাবার নয়। কারণ বেকারির সমস্ত জিনিসে ফাইবার একেবারেই থাকে না, যা কোষ্ঠকাঠিন্যকে বাড়িয়ে তুলতে সাহায্য করে। আর কোষ্ঠকাঠিন্য দেখা দিলে পাইলসের স’মস্যা বাড়তে পারে।
সূত্র: বোল্ডস্কাই

এ সম্পর্কিত আরও পোস্ট

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button
Close
Close