হাতে ৫ টাকার নোট বা কয়েন থাকলেই হতে পারেন লক্ষ টাকার মালিক

হাতে ৫ টাকার নোট বা কয়েন থাকলেই হতে পারেন লক্ষ টাকার মালিক

ওয়েবসাইটে পুরানো জিনিস বিক্রি করে আপনি প্রায়শই লোককে কোটিপতি হতে দেখেছেন। কারণ জিনিসগুলি যখন পুরানো হয়ে যায়, তখন এইসব জিনিস এন্টিক বিভাগে পড়ে। আন্তর্জাতিক বাজারে তাদের উচ্চ চাহিদা রয়েছে।

আজকাল ই-কমার্স ওয়েবসাইটে একই ধরণের সুযোগ পাওয়া যাচ্ছে। যাতে আপনি বৈষ্ণো দেবীর ছবি (ওল্ড কয়েন নিলাম) সমেত একটি পুরানো কয়েন রেখে 10 লক্ষ টাকা পর্যন্ত আয় করতে পারেন।

সম্প্রতি খবরে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনে এমন এক ব্যক্তির নামও প্রকাশিত হয়েছে, যে ১০০ টাকার পুরনো নোট বিক্রি করে লক্ষ লক্ষ টাকা উপার্জন করেছে। আপনি যদি পুরানো জিনিস সংগ্রহের অনুরাগী হন, তাহলে আপনার এই শখটি আপনাকে কোটিপতিও বানাতে পারে।

যাদের কাছে মুদ্রার ওপরে বৈষ্ণো দেবীর ছবি খোদাই করা ৫ টাকার মুদ্রা আছে, তারা বিড করার জন্য এটি রাখতে পারেন। আজকাল এটি দুর্দান্ত ট্রেন্ডে রয়েছে। পুরানো জিনিসগুলির সন্ধানকারী লোকেরা এটি সন্ধান করছে। ২০০২ সালে সরকার এই মুদ্রা জারি করেছিল। এই মুদ্রাগুলি ৫ এবং ১০ টাকার হয়।

যেহেতু এই মুদ্রাগুলিতে দেবী বৈষ্ণো দেবীর ছবি রয়েছে, সেগুলি খুব শুভ বলে মনে করা হয়। এ কারণেই প্রত্যেকে এটি তাদের সাথে রাখতে চায়। যে কারণে লোকেরা এই জাতীয় কয়েন কিনতে কয়েক লক্ষ টাকা পর্যন্ত ব্যয় করতে আগ্রহী। এর বাইরে (786) সিরিজের নোটগুলিরও খুব চাহিদা রয়েছে।

এই নোটগুলি সৌভাগ্যের প্রতীক হিসাবে বিবেচিত হয়। মুসলিম সম্প্রদায়ের ক্ষেত্রে এই ঝোঁ-ক বেশি দেখা যায়। তাই ক্রেতারা প্রায়শই এটি সন্ধান করে। মিডিয়া রিপোর্ট অনুসারে, ইন্ডিয়ামার্ট, olx এসব ওয়েবসাইটে অনুরূপ পুরানো কয়েন এবং নোট নিলামের সুবিধা দেওয়া হয়েছে।

এ সম্পর্কিত আরও পোস্ট

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button
error: Content is protected !!
Close
Close