জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের মৌখিক পরীক্ষা হবে অনলাইনে

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের মৌখিক পরীক্ষা হবে অনলাইনে

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনার্স ৪র্থ বর্ষের ভাইভা (মৌখিক পরীক্ষা) অনলাইন প্লাটফর্মে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। আগামী ২৪ মে থেকে ২৪ জুন পর্যন্ত জুম সফটওয়্যার ব্যবহার করে এসব পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। রোববার (৯ মে) জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক বদিউজ্জামান স্বাক্ষরিত এক জরুরি বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরীণ পরীক্ষাগুলো এখন থেকে অনলাইনে নেওয়া যাবে বলে বৃহস্পতিবার (৬ মে) বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি) সিদ্ধান্ত দেওয়ার পর জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় এ সিদ্ধান্ত নিল।

অনলাইন প্লাটফর্মে পরীক্ষা নেওয়ার আগে অবশ্য বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কাউন্সিলে সিদ্ধান্ত নিতে হবে। অনলাইনে পরীক্ষা নেওয়ার জন্য একটি গাইডলাইন এবং বেশ কিছু নির্দেশনা দিয়েছে এ সংক্রান্ত টেকনিক্যাল কমিটি। এগুলো মেনে পরীক্ষা নিতে হবে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে। কিন্তু জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ তা করেছে কি না সে বিষয়ে জানানো হয়নি।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৯ সালের অনার্স ৪র্থ বর্ষের মৌখিক পরীক্ষা (বিএ, বিএসএস ও বিবিএ) করোনাভাইরাস পরিস্থিতি বিবেচনায় অনলাইন প্লাটফর্মের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এ পরীক্ষা ২৪ মে থেকে ২৪ জুন তারিখের মধ্যে সম্পন্ন করার জন্য বলা হয়েছে বিজ্ঞপ্তিতে। একই সঙ্গে বিজ্ঞপ্তিতে অনলাইনে মৌখিক পরীক্ষা আয়োজনের বিস্তারিত প্রক্রিয়া তুলে ধরা হয়েছে।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় জানিয়েছে, সংশ্লিষ্ট কলেজ কেন্দ্রগুলোকে বিষয়ভিত্তিক পরীক্ষার্থীর তথ্য ও বিবরণী অনলাইনে পাঠানো হবে। বিশ্ববিদ্যালয় দুই জন বহিঃপরীক্ষক নির্ধারণ করে কেন্দ্রের অধ্যক্ষ বা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে জানাতে হবে। পরীক্ষা গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট কলেজের অধ্যক্ষ বা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা দুই জন অন্তঃপরীক্ষক নির্বাচন করবেন। তারা জুম অ্যাপের মাধ্যমে মৌখিক পরীক্ষা গ্রহণ এবং স্ক্রিনশট নিয়ে পরীক্ষার্থীর হাজিরা গ্রহণ করবেন।

কলেজ কর্তৃপক্ষ বহিঃপরীক্ষকের সঙ্গে যোগাযোগ করে বিষয় নির্ধারণ করে পরীক্ষা গ্রহণের ব্যবস্থা করবেন। পরীক্ষার তারিখ ও সময় পরীক্ষার্থীদের প্রবেশপত্র ও রেজিস্ট্রেশন কার্ডসহ নির্ধারিত সময়ে জুম অ্যাপের লিংকে উপস্থিত জন্য সংশ্লিষ্ট কলেজ কেন্দ্রের অধ্যক্ষ বা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে অবহিত করার ব্যবস্থা নেবেন।

অনলাইনে পাঠানো পরীক্ষার্থীদের বিবরণী ডাউনলোড করে প্রিন্ট কপি দায়িত্বপ্রাপ্ত বহিঃপরীক্ষকদের পরীক্ষা শুরুর আগেই পাঠানোর ব্যবস্থা নেবেন। পরীক্ষা নেওয়ার জন্য জুম অ্যাপের লিংক বহিঃপরীক্ষক এবং শিক্ষার্থীদের পাঠাতে হবে।পূর্ব নির্ধারিত তারিখ ও সময়ে অন্তঃপরীক্ষক ও বহিঃপরীক্ষক জুম অ্যাপে যুক্ত হবেন। পাঠানো ডাটার ক্রমানুসারে একজন পরীক্ষার্থীকে সংযুক্ত করে পরীক্ষা শুরু করতে হবে। মৌখিক পরীক্ষা গ্রহণের সময় শিক্ষার্থীদের অবশ্যই ভিডিও খোলা থাকতে হবে। বাকি পরীক্ষার্থীরা ওয়েটিং রুমে থাকবে।

একজন পরীক্ষার্থীর পরীক্ষা নেওয়া শেষে অন্তঃপরীক্ষক ও বহিঃপরীক্ষকরা আলোচনা করে প্রাপ্ত নম্বর নির্ধারণ করবেন। এসময়ে পরীক্ষার্থীকে অনলাইনে রাখা যাবে না। নির্ধারিত নম্বর অন্তঃপরীক্ষক ও বহিঃপরীক্ষক নিজ নিজ বিবরণীতে লিখবেন।

এরপর পরবর্তী পরীক্ষার্থীকে ওয়েটিং রুম থেকে অনলাইনে এনে তার পরীক্ষা শুরু করতে হবে। এভাবে ক্রমানুযায়ী পরীক্ষা গ্রহণ করতে হবে। পরীক্ষার্থী অনলাইনে যুক্ত হওয়ার পর তার নাম, রোল নম্বর, রেজিস্ট্রেশন নম্বর ও শিক্ষাবর্ষ পাঠানোর ডাটার সঙ্গে মিলিয়ে নিয়ে পরীক্ষা শুরু করতে হবে।পরীক্ষা গ্রহণ শেষে আগের নিয়মে কলেজ কেন্দ্র অনলাইনে প্রাপ্ত নম্বর এন্ট্রি করবে।

এ সম্পর্কিত আরও পোস্ট

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button
Close
Close