মসজিদ কমিটির সভাপতি নায়ক জায়েদ বললেন, ‘আল্লাহ আমাকে কবুল করেছে’

মসজিদ কমিটির সভাপতি নায়ক জায়েদ বললেন, ‘আল্লাহ আমাকে কবুল করেছে’

ঢালিউডের নায়ক জায়েদ খান নিজেকে ধর্মভীরু পরিচয় দেন। নেশা কিংবা বাজে কোনো নেশা নেই বলে দাবি তার। সম্প্রতি তিনি মসজিদ কমিটির সভাপতির দায়িত্ব নিয়েছেন। তাকে জন্মভূমি পিরোজপুরের মাছিমপুরের আল হেরা জামে মসজিদের সভাপতির দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

বুধবার গণমাধ্যমে জায়েদ নিজেই বিষয়টি জানিয়েছেন। জায়েদ খান নতুন দায়িত্ব পেয়ে বললেন, আল্লাহ আমাকে কবুল করেছে। সিনেমার মানুষ হয়েও মসজিদ কমিটির এ দায়িত্ব পাওয়াকে গর্বের বলে মনে করছেন ঢালিউডের এ নায়ক।

তার উচ্ছ্বসিত হওয়াও স্বাভাবিক। কারণ, এই মসজিদের সঙ্গে জড়িয়ে আছে তার বাবার স্মৃতি।জায়েদ বলেন, ‘বাড়ি গিয়ে আমি সারপ্রাইজড। কারণ আল হেরা জামে মসজিদ থেকে আমাকে সেখানে আমন্ত্রণ জানানো হয়। আমাকে মসজিদ কমিটির সভাপতি করা হয়েছে জানিয়ে আমার হাতে উপহারস্বরূপ জায়নামাজ ও টুপি তুলে দেওয়া হয়।’

সভাপতি কেন করা হলো, এমন প্রশ্নের জবাবে জায়েদ খান বলেন, ‘আসলে আমার কাছেও এটিই প্রশ্ন ছিল। সাধারণত মসজিদ কমিটির সভাপতি বা সেক্রেটারি হন স্থানীয় জনপ্রতিনিধি কিংবা গণ্যমান্য ব্যক্তি। কিন্তু আমাকে সভাপতি করা হয়েছে কেন, এটি জানতে গিয়ে তারা বলেন, আমার কোনো বাজে অভ্যাস নেই, মদ ও সিগারেট খাই না। যার কারণে আমাকে এ দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।’

জায়েদ আরও বলেন, আমি অভিনয় করিও, অনেকের ধারণা— যারা অভিনয় করে, সিনেমার মানুষ; তারা খারাপ। আমাকে এই পদে নেওয়া হয়েছে, এখন অনেকের ভুল ভাঙবে। আল্লাহ আমাকে কবুল করেছেন বলেই এমন একটি মর্যাদাকর স্থান পেয়েছি।

জায়েদ খান আরও জানিয়েছেন, ‘আমি দেখলাম মসজিদে খুব গরম, মুসল্লিদের কষ্ট হয়। বলেছি, খুব দ্রুতই দুই টনের একটি এসি (এয়ারকন্ডিশনার) আমি উপহার দেব।’ ২০০৮ সালে মহম্মদ হান্‌নান পরিচালিত ‘ভালোবাসা ভালোবাসা’ সিনেমার মাধ্যমে অভিনয়জীবন শুরু করেন জায়েদ খান। তিনি বর্তমানে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

এ সম্পর্কিত আরও পোস্ট

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button
Close
Close