বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী যখন ডাকাত

বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী যখন ডাকাত

চট্টগ্রামে একটি কোম্পানির ডিলার পয়েন্ট থেকে সিগারেটসহ কয়েক লাখ টাকার মালামাল লুট করে একটি সংঘবদ্ধ ডাকাত দল। এ ঘটনায় কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীসহ ডাকাত চক্রের তিন সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছে। সঙ্গে উদ্ধার করা হয়েছে লুটের ৩৩ লাখ টাকার মালামাল।গ্রেফতারকৃতরা

হচ্ছে- ডাকাত চক্রের মূলহোতা নোয়াখালী জেলার হাতিয়া থানার পশ্চিম বড়ডেল গ্রামের মৃত গিয়াস উদ্দিনের পুত্র নুর নবী (৩০), কুমিল্লা জেলার মৃত আব্দুল খালেকের পুত্র শাহজাহান (৬০) ও তার ছেলে এনায়েত উল্লাহ শান্ত (২৬)। শান্ত কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্সের শিক্ষার্থী।রোববার রাতে ও সকালে চট্টগ্রামের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে। সোমবার ডবলমুরিং থানায় সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানিয়েছেন সিএমপির ডিসি (পশ্চিম) আব্দুল ওয়ারিশ।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি জানান, গত ২৭ মে নগরীর ডবলমুরিং মডেল থানার পোস্তারপাড় এলাকায় একটি কোম্পানির ডিলার খাজা ট্রেডার্সের গোডাউনে দুর্ধর্ষ ডাকাতির ঘটনা ঘটে। ১০-১২ জনের একটি ডাকাত দল ৩ টনের একটি ট্রাক নিয়ে এসে অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে দারোয়ানসহ ৩ জনকে মারধর

করে ডাকাতি করে মালামাল নিয়ে যায়।ওই ডাকাতির ঘটনার লুণ্ঠিত ৯২ কার্টন সিগারেট এবং দুই কার্টন বিক্রির ৬৮ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় ওই চক্রের মূলহোতাসহ তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।গ্রেফতারকৃতরা পেশাদার ডাকাত দলের সদস্য। গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে পিতা-পুত্র

রয়েছে। সিগারেট ডাকাতি করাই তাদের পেশা। তবে তা কয়েক হাজার কিংবা লাখ টাকার সিগারেট নয়। কমপক্ষে ২০ লাখ টাকার সিগারেট না হলে তাদের পোষায় না। তাই ডাকাতির টার্গেটই থাকে বিশ লাখ টাকার ওপরে।এক জেলায় ডাকাতি করে অন্য জেলায় পাড়ি জমায় ২০-২৫ জনের এই

ডাকাত চক্র। এর ধারাবাহিকতায় গত পাঁচ মাসে ৬টি ডাকাতির ঘটনায় কোটি টাকার উপরে সিগারেট লুট করেছে চক্রটি। সর্বশেষ নগরীর একটি গ্রুপের ডিলার খাজা ট্রেডার্সের গোডাউনে ডাকাতি করে তারা।ডবলমুরিং থানার ওসি মোহাম্মদ মহসীন জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে ডাকাত চক্রের তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের ডাকাতি মামলা গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে চালান দেয়া হয়েছে।

এ সম্পর্কিত আরও পোস্ট

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button
Close
Close