জিম না করে ভুঁড়ি কমানোর উপায়

জিম না করে ভুঁড়ি কমানোর উপায়

ভুঁড়ি নিয়ে আজকাল অনেকেই ব্রিবত। শরীরের আগে ভুঁড়ি হাঁটে বলেই হয়তো কমবেশি সবাই ভুঁড়ি কমাতে চান। কিন্তু ব্যস্ততায় নিয়মিত শরীরচর্চা করা হয়না। জিমে যে যাবেন সে সময়টুকুও পাচ্ছেন না, তাহলে কি মেদভুঁড়ি নিয়ে কাটবে বাকী জীবন, এমন ভয়ংকর প্রশ্নের উত্তর হলো, না।
স্বাস্থ্য টিপস health tips healthy lifestyle tips nutrition tips healthy eating tips stay happy and healthy 10 tips for a healthy lifestyle health tips for womenস্বাস্থ্যকর জীবনযাপনে অভ্যস্থ হলে সহজে পেটের মেদ কমিয়ে ফেলা সম্ভব।উচ্চ চর্বিযুক্ত খাবার যে পেটের মেদ বাড়ায় তা নয়, বেশি ক্যালরিযুক্ত যেকোনো খাবারই পেটের মেদ বাড়াতে পারে।

একবার পেটে মেদ জমলে সেটা কাটিয়ে ওঠা যাবে না, এ ধারণা একদমই ভুল। শুধু জিমে গিয়ে কসরত করা আর ডায়েট মেনে খাবার খাওয়াই নয়। আপনি যদি কিছু ঘরোয়া উপায় মেনে চলেন, তাহলে পেটের মেদ ঝরানো সহজ অনায়াসেই।আমাদের শরীরের বিভিন্ন জায়গায় মেদ জমে। স্বাস্থ্য টিপস health tips healthy lifestyle tips nutrition tips healthy eating tips stay happy and healthy 10 tips for a healthy lifestyle health tips for women তার মধ্যে পেটের মেদ ঝরানো সব থেকে বেশি কঠিন হয়ে পড়ে।

তবে সেটা যে খুব কঠিন তা কিন্তু নয়, কারণ ইচ্ছা থাকলে উপায় হয়। তার জন্য কয়েকটা সহজ ঘরোয়া টিপস মেনে চলতে হবে। তাহলে এক ঝলকে দেখে নিতে পারেন, কী কী করলে আপনার পেটের অতিরিক্ত মেদ বা ভুঁড়ি কমাতে সাহায্য করবে-সন্ধ্যা ৭টার আগে রাতের খাবার খেয়ে নেবেন।

দুপুরের খাবারের তালিকায় ৫০ শতাংশ ক্যালরি সম্পন্ন খাবার খেতে হবে। এবং রাতের খাবারের তালিকায় সব থেকে কম ক্যালরি যুক্ত খাবার খেতে হবে।

কারণ, দুপুরের খাবারের সময়ে আমাদের হজমশক্তি বেশি কার্যকর থাকে।মিষ্টি বা মিষ্টিজাতীয় খাবার যত কম খাওয়া যায় তত ভালো। মোট কথায় কার্বোহাইড্রেটজাতীয় খাবার থেকে নিজেকে যতটা সম্ভব দূরে রাখুন।সকালে খালি পেটে হালকা গরম পানিতে মেথির গুঁড়া মিশিয়ে পান করবেন।

অথবা, রাতে মেথির দানা পানিতে ভিজিয়ে রাখুন। সকালে উঠে খালি পেটে আগে মেথি ভেজানো পানি পান করুন। স্বাস্থ্য টিপস health tips healthy lifestyle tips nutrition tips healthy eating tips stay happy and healthy 10 tips for a healthy lifestyle health tips for womenহজমশক্তি বাড়াতে ত্রিফলার জুড়ি মেলা ভার। ত্রিফলা হজমশক্তি বাড়ানোর পাশাপাশি শরীর থেকে দূষিত পদার্থও বের করে দিতে পারে। তাই হালকা গরম পানিতে ত্রিফলার গুঁড়া ভিজিয়ে রাখুন।

এবং রাতের খাবারের দুই ঘণ্টা পরে ত্রিফলা ভেজানো পানি পান করবেন।মেদভুঁড়ি কমানোর জন্য দারুণ উপকারী শুকনা আদার গুঁড়া। প্রত্যেকদিন যদি হালকা গরম পানিতে শুকনা আদার

গুঁড়া ভিজিয়ে পান করতে পারেন তাহলে আপনার শরীরের অতিরিক্ত মেদই যে শুধু ঝরবে তাই নয়, আপনার শরীরের মেটাবলিজমও বাড়বে। তাই এখন থেকে প্রত্যেকদিনের ডায়েটের তালিকায় অবশ্যই আদার গুঁড়া রাখুন।পেটের মেদ ঝরানোর জন্য যোগাসনও দারুণ উপকারী।

প্রত্যেকদিন অন্তত ৩০ মিনিট হাঁটার অভ্যাস করুন।যখনই পানির পিপাসা পাবে, তখন ঠাণ্ডা পানির পরিবর্তে হালকা গরম পানি পান করবেন। গরম পানি ওজন কমানো, মেদ ঝরানোর পাশাপাশি শরীরের মেটাবলিজম বাড়াতেও সাহায্য করে।

সব থেকে বেশি যে বিষয়টা খেয়াল রাখা প্রয়োজন, তা হলো খাবার সময় নিয়ে ধীরে ধীরে খেতে হবে। খাবার ভালো করে চিবিয়ে খেলে তা হজমও সঠিকভাবে হয়। ইত্তেফাক/আরএম

এ সম্পর্কিত আরও পোস্ট

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button
Close
Close