ভাইভা বোর্ডে ‘চমক’ দেখাতে পারেন আপনিও

ভাইভা বোর্ডে ‘চমক’ দেখাতে পারেন আপনিও

যে কোনো ভাইভা হলো একটি মনস্তাত্ত্বিক খেলা। এই খেলায় নিজেকে পণ্ডিত ব্যক্তি হিসাবে উপস্থাপন করে নয় বরং ভাইভা বোর্ডকে ‘কনভিন্স’ করে জিততে হয়। ‘কনভিন্স’ করতে হলে চাই আত্মবিশ্বাস এবং বিনয়। ভাইভা বোর্ড কোনো পণ্ডিতকে চায় না। চায় একজন যোগ্য ও বিশ্বস্ত লোক। সেজন্য কনভিন্সের পাশাপাশি দরকার স্মাইলিং ফেসও। কমন প্রশ্নগুলোর ব্যতিক্রমী, গোছানো ও সাবলীল উত্তর তৈরি করে নিতে পারলে বোর্ডকে সহজেই আয়ত্তে আনা সম্ভব।

বিসিএস ভাইভা হয় সাধারণত ক্যাডার পছন্দের ওপর। মাঝে মাঝে এর ব্যতিক্রমও ঘটে। তাই বাজারে প্রচলিত বিসিএস ভাইভার অভিজ্ঞতা নিয়ে বেশ কিছু বই পাওয়া যায়, সেখান থেকে একটি বই সংগ্রহ করে প্রশ্নের ধরন দেখে নিন। ইন্টারনেটের এই যুগে ভাইভার প্রস্তুতি নেয়া অনেকটা ডালভাত। কেননা প্রয়োজনীয় যে কোন বিষয়ে গুগলের সহায়তা নেওয়া যায়।গাইড ও ইন্টারনেট দেখে প্রথম তিনটি পছন্দের ক্যাডারের ওপর সাধারণ বিষয়গুলো দেখে দিন। এগুলো দেখবেন শুধু নিজের আত্মবিশ্বাস বাড়ানোর জন্য।

এতে বিসিএস ভাইভার কিছু কমন প্রশ্ন ও উত্তর পাওয়া যাবে। এই কমন প্রশ্নগুলোর ব্যতিক্রমী, গোছানো ও সাবলীল উত্তর তৈরি করে নিতে পারলে বোর্ডকে সহজেই আয়ত্তে আনা সম্ভব।ভাইভা বোর্ডকে মুগ্ধ করার জন্য সাম্প্রতিক বিষয়গুলো আয়তে থাকতে হবে। কারণ ভাইভা বোর্ডে সবচেয়ে বেশি প্রশ্ন করা হয় সাম্প্রতিক বিষয়ের উপর। বিশেষ করে দেশের বর্তমান অর্থনীতি, আন্তর্জাতিক, রাজনীতি ও ক্রিকেট ইত্যাদি বিষয়ের দিকে নজর রাখুন। তাছাড়া দেশের এবং আন্তর্জাতিক মানচিত্রের ওপর দখল,আপনাকে আত্মবিশ্বাসী করে তুলবে।সবশেষ কিছু সাধারণ বিষয় মনে রাখুন। ভাইভা বোর্ডে অনুমতি নিয়ে প্রবেশ করুন ও সালাম দিয়ে বসুন। স্মাইলিং ফেস খুব গুরুত্বপূর্ণ। আই কন্টাক্ট, পোশাক ইত্যাদিতে আপনার ব্যক্তিত্ব ফুটে উঠবে। তাই এই দিকটায় বিশেষ খেয়াল রাখুন। মনে রাখবেন, কোনো যুক্তি-তর্কে যাবেন না। বরং বিনয়ের সঙ্গে আপনার উত্তর দিন।এ

ছাড়া নিজের একাডেমিক বিষয় সম্পর্কে সম্যক ধারণা, সংবিধান, কমপক্ষে ৩টি পত্রিকা পড়া (১টি ইংরেজি, ২টি বাংলা) বিসিএস প্রস্তুতিকে শানিত করবে। সরকারের কর্মকাণ্ড সম্পর্কে ধারনার জন্য বিটিভি অনুসরণ করতে পারেন। অন্যান্য গণমাধ্যম দেবে দেশীয় ও আন্তর্জাতিক ঘটনাবহুল তথ্য। ইউটিউব থেকে কিছু বিসিএস ভাইভার ভিডিও দেখে নিতে পারেন,

প্রস্ততি নিতে এগুলো আপনাকে সহায়তা করবে। সবশেষ কিছু সাধারণ বিষয় মনে রাখুন। ভাইভা বোর্ডে অনুমতি নিয়ে প্রবেশ করুন ও সালাম দিয়ে বসুন। স্মাইলিং ফেস খুব গুরুত্বপূর্ণ। আই কন্টাক্ট, পোশাক ইত্যাদিতে আপনার ব্যক্তিত্ব ফুটে উঠবে। তাই এই দিকটায় বিশেষ খেয়াল রাখুন। মনে রাখবেন, কোনো যুক্তি-তর্কে যাবেন না। বরং বিনয়ের সঙ্গে আপনার উত্তর দিন।সব পারতে হবে এমনটা নয়। আপনি কেমন করে না জানা বিষয়কে প্রকাশ করেন সেটাও দেখার বিষয়। নিয়মিত চর্চা করুন, আত্মবিশ্বাসী হোন, সৃষ্টিকর্তাকে স্মরণ রাখুন এবং সব কিছু মেনে নেওয়ার মানসিকতা তৈরি করুন। দেখবেন দিন শেষে ভাইভা বোর্ডকে চমকে দিয়েছেন আপনিই।

এ সম্পর্কিত আরও পোস্ট

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button
Close
Close