ড্রাগন চাষে সফল মনিরুজ্জামান; প্রতিদিন বিক্রি আড়াই লাখ টাকা!

ড্রাগন চাষে সফল মনিরুজ্জামান; প্রতিদিন বিক্রি আড়াই লাখ টাকা!

ড্রাগন বিদেশের মাটিতে জন্মালেও বর্তমানে বাংলাদেশে ব্যাপকভাবে শুরু হয়েছে এর বাণিজ্যিক চাষাবাদ। দেশের বেশিরভাগ জেলায় ড্রাগনের চাষ করে উদ্যোক্তা পেয়েছেন ব্যাপক সফলতা। এমনি একজন উদ্যোক্তা মুন্সিগঞ্জের টঙ্গীবাড়ি উপজেলার আব্দুল্লাহপুরের মনিরুজ্জামান।

প্রায় ৮ একর জমিতে ৫০ হাজার ড্রাগনের চারার মাধ্যমে গড়ে তোলা এ বাগানে ইতোমধ্যেই ফল তোলা শুরু করেছেন। বর্তমানে প্রতিদিন প্রায় আড়াই লাখ টাকার ড্রাগন বিক্রি হয় বলে জানিয়েছেন উদ্যোক্তা।জানা যায়, শখের বশে ড্রাগনের বাগান গড়ে তুলেছেন সানফ্লাওয়ার কোল্ড স্টোরেজের স্বত্বাধিকারী হাজী মো. মনিরুজ্জামান।

১৬ একর জমিতে ৮ একর ড্রাগন ও বাকি ৮ একর জমিতে ভিয়েতনামি নারিকেল, লিচু, জম্বুরা, মাল্টা, আতা, খেঁজুরসহ ২৫ জাতের অন্যান্য ফল গাছ রয়েছে। এতে খরচ হয়েছে প্রায় ৩ কোটি টাকা। উদ্যোক্তা মনিরুজ্জামান জানান, ড্রাগন চাষে ব্যাপক সফলতা পেয়েছি। ২০২০ সালে কিছু পরিমাণ জমিতে ড্রাগন চাষ করা হয়। পরে এর থেকে ফল তোলা শুরু হয় এবং ফল খুবই মিষ্টি হওয়ায় পুরো ৮ একর জমিজুরে ড্রাগন চাষ করা হয়।

এছাড়াও ২৫ জাতের ফল গাছ রোপণ করা হয়েছে। সেখান থেকেও ভাল ফলন আশা করছি বলেও তিনি জানান।টঙ্গীবাড়ি উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা জয়নুল আলম তালুকদার জানান, আব্দুল্লাহপুরের

বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মনিরুজ্জামান তিনি নিজ উদ্যোগে ৮ একর জমির উপর ৫০ হাজার ড্রাগনের চারা দ্বারা এ বাগানটি তৈরি করেছেন। পাশাপাশি তিনি আরও ৮ একর জমিতে অন্যান্য ফলের চারা রোপণ করেছেন। নতুন উদ্যোক্তাদের প্রয়োজনীয় সেবা ও পরামর্শ প্রদান করা হচ্ছে বলেও তিনি জানান।তথ্যসূত্রঃ আধুনিক কৃষি খামার

এ সম্পর্কিত আরও পোস্ট

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Back to top button
Close
Close