ফেসবুক গ্রুপ থেকে আয় করার উপায়-Earning From Facebook Group.

শেয়ারিং, আলোচনা বা নেটওয়ার্কিং এর জন্য ফেসবুক গ্রুপগুলো আদর্শ স্থান। আপনি হয়ত জেনে খুশি হবেন যে ফেসবুক গ্রুপ থেকে আয় করা সম্ভব। সত্যি বলতে একাধিক উপায়ে ফেসবুক গ্রুপ থেকে আয় করতে পারবেন। অফিসিয়াল পদ্ধতিতেই ফেসবুক গ্রপ থেকে ইনকাম করা যায়। চলুন জেনে নেওয়া যাক ফেসবুক গ্রুপ থেকে আয় করার উপায় সম্পর্কে বিস্তারিত।

পেইড মেম্বারশিপ

ফেসবুক গ্রুপে সম্প্রতি সাবস্ক্রিপশন ফিচার চালু করা হয়েছে। এই ফিচার ব্যবহার করে গ্রুপের মধ্যে আলাদা সাব-গ্রুপ তৈরি করা যাবে, যেখানের কনটেন্ট দেখার জন্য মেম্বাররা অর্থ প্রদান করবে। ফেসবুক গ্রুপ থেকে আয়ের এটি একটি সেরা পথ হতে পারে, যদি আপনার গ্রুপটি শিক্ষামূলক গ্রুপ হয়ে থাকে। ধরুনঃ আপনি কোনো স্কিল শিখান, সেক্ষেত্রে আপনার সেই কোর্স বা কনটেন্ট গ্রুপের মেম্বারদের সাথে সাবক্রিপশন এর বিনিময়ে শেয়ার করতে পারেন।

যেসব গ্রুপের কমিনিউটি একটিভ রয়েছে, তাদের জন্য ফেসবুক গ্রুপ থেকে আয়ের একটি পথ হতে পারে গ্রুপ সাবস্ক্রিপশন। ফেসবুক গ্রুপে সাবস্ক্রিপশন ফিচার চালুর জন্য আপনাকে অবশ্যই উক্ত গ্রুপের এডমিন হতে হবে। পণ্য বিক্রি করে ফেসবুক গ্রুপ থেকে আয় ফেসবুকে অসংখ্য “বাই এন্ড সেল” গ্রুপ রয়েছে, এসব গ্রুপে বাচ্চাদের কাপড় থেকে শুরু করে সেকেন্ড হ্যান্ড কার পর্যন্ত সবকিছু পাওয়া যায়। কম দামে ভালো প্রোডাক্ট কেনার জন্য এসব গ্রুপ একটি অসাধারণ বিকল্প মাধ্যম হতে পারে। তথ্য হোক বা সেরা অফার খোঁজা, একই ধরনের প্রয়োজনে ফেসবুক গ্রুপ বেশ কাজে আসতে পারে।

স্থানীয় কমিউনিটির মধ্যে কোনো পণ্য আদান-প্রদান করে সুসম্পর্ক স্থাপনের ক্ষেত্রে এসব গ্রুপ বেশ জনপ্রিয়। এছাড়াও ব্যবসার ক্ষেত্রে কাস্টমারের সাথে সরাসরি যোগাযোগ হোক কিংবা নতুন কাস্টমার পাওয়া হোক, উভয় ক্ষেত্রে ফেসবুক গ্র‍প সহায়ক ভূমিকা পালন করে। এসব “বাই এন্ড সেল” গ্রুপে নিজের পণ্য বিক্রির পাশাপাশি বিজ্ঞাপনের জন্য অন্যদের কাছ থেকেও অর্থ চার্জ করা সম্ভব। এর ফলে গ্রুপটি অনেকটা ই-কমার্স প্ল্যাটফর্মের মত কাজ করে, যেখানে একাধিক প্রতিষ্ঠান স্বাভাবিকভাবে কার্যক্রম সম্পাদনা করে।

সার্চ এর মাধ্যমে নিজের প্রয়োজনের গ্রুপ খুঁজে বের করা যায়। এরপর সেখানে আপনার পণ্য বিক্রি করতে পারেন। তবে ফেসবুক গ্রপ থেকে আয়ের জন্য নিজের গ্রুপ তৈরি করা সবচেয়ে সেরা সিদ্ধান্ত। ফ্রিল্যান্সিং সার্ভিস দিয়ে ফেসবুক গ্রুপ থেকে আয় বেচাকেনার গ্রুপে যেমন বিভিন্ন পণ্য বিক্রি বা খোঁজা যায়, ঠিক তেমনি ফ্রিল্যান্সার, চাকরিপ্রার্থী, কনসালটেন্ট, ইত্যাদির জন্য ফেসবুক গ্রুপ রয়েছে। যারা দক্ষ তারা এসব গ্রুপে নিজের সার্ভিস অফার করেন, এবং যাদের সেবা দরকার তারা তা কিনে নেন।

ফ্রিল্যান্সারগণ বিভিন্ন ফেসবুক গ্রুপ থেকে একাধিক উপায়ে কাজ পেতে পারেন। প্রথমত, বিভিন্ন গ্রুপ যারা ফ্রিল্যান্সার কর্মী খুঁজছেন তারা পোস্ট করে থাকেন। এভাবে নিজের দক্ষতার সাথে মিল থাকা কাজের সুবিধা সহজে লুফে নেওয়া যায়। যেমনঃ গ্রাফিক্স ডিজাইন গ্রুপে আপনার কাজ তুলে ধরলে কোনো প্রতিষ্ঠানের তা পছন্দ হলে তারা আপনাকে হায়ার করার জন্য ব্যক্তিগতভাবে যোগাযোগ করতে পারে।

👉 ফেসবুক গ্রুপ খোলার নিয়ম

আপনার যে বিষয়ে দক্ষতা রয়েছে তা নিয়ে ফ্রিল্যান্সিং করতে পারেন এসব গ্রুপের সাহায্যে। ওয়েব ডিজাইন, এসইও, রাইটিং, গ্রাফিক্স ডিজাইনসহ যেকোনো বিষয়ে ফ্রিল্যান্সিং সেবা প্রদান সম্ভব। এছাড়াও আপনি চাইলে নিজের সার্ভিস দেওয়ার জন্য ফেসবুক গ্রুপ খুলতে পারন, যেখানে একই সেক্টরের মানুষজন অভিজ্ঞতা, সুযোগ, ইত্যাদি আদানপ্রদান করতে পারে। আবার আপনি যদি কাজের জন্য লোক খোঁজেন, সেক্ষেত্রে আপনার চাকরির অফার শেয়ার করে সিভি সংগ্রহ করে আগ্রহী ক্যান্ডিডেট থেকে আপনার পছন্দের ক্যান্ডিডেট বেছে নিতে পারেন। এভাবে খুব সহজে কাজের জন্য দক্ষ জনশক্তি খোঁজা বা কাজ পাওয়া সম্ভব।ফেসবুক গ্রুপের মাধ্যমে ফেসবুক পেজের আয় বৃদ্ধি

আপনি যদি ইতোমধ্যেই ফেসবুক পেজ থেকে আয় করে থাকেন তাহলে আপনার জন্য সুখবর আছে। পেজের আয়ের পথ কিন্তু ফেসবুক গ্রুপে শেয়ারের মাধ্যমে সুগম করা সম্ভব। প্রথমত আপনার ফেসবুক পেজ যদি মনেটাইজ হয়, সেক্ষেত্রে পেজের ভিডিও গ্রুপ শেয়ার করে এড এর মাধ্যমে আয় সম্ভব। ফেসবুক পেজের চেয়ে গ্রুপে বেশি রিচ পাওয়া সম্ভব। তাই আপনার পেজ থাকলেও একটি গ্রুপ খুলে কমিউনিটি তৈরি করতে পারেন।

ফেসবুক গ্রুপ থেকে আয় করার উপায়

অর্থাৎ ফেসবুক গ্রুপ থেকে আয় এর ক্ষেত্রে ফেসবুক পেজ ব্যবহার করাও সম্ভব। ফেসবুক পেজে আয়ের যেসব উপায় আছে, সেগুলোর আয় বাড়ানোর উপায় হতে পারে ফেসবুক গ্রুপ। পেজের কনটেন্ট মানুষের কাছে পৌঁছানোর মাধ্যম হতে পারে ফেসবুক গ্রুপ। আপনার যে বিষয়ে দক্ষতা রয়েছে তা নিয়ে ফ্রিল্যান্সিং করতে পারেন এসব গ্রুপের সাহায্যে। ওয়েব ডিজাইন, এসইও, রাইটিং, গ্রাফিক্স ডিজাইনসহ যেকোনো বিষয়ে ফ্রিল্যান্সিং সেবা প্রদান সম্ভব। এছাড়াও আপনি চাইলে নিজের সার্ভিস দেওয়ার জন্য ফেসবুক গ্রুপ খুলতে পারন, যেখানে একই সেক্টরের মানুষজন অভিজ্ঞতা, সুযোগ, ইত্যাদি আদানপ্রদান করতে পারে।

আবার আপনি যদি কাজের জন্য লোক খোঁজেন, সেক্ষেত্রে আপনার চাকরির অফার শেয়ার করে সিভি সংগ্রহ করে আগ্রহী ক্যান্ডিডেট থেকে আপনার পছন্দের ক্যান্ডিডেট বেছে নিতে পারেন। এভাবে খুব সহজে কাজের জন্য দক্ষ জনশক্তি খোঁজা বা কাজ পাওয়া সম্ভব।

ফেসবুক গ্রুপের মাধ্যমে ফেসবুক পেজের আয় বৃদ্ধি

আপনি যদি ইতোমধ্যেই ফেসবুক পেজ থেকে আয় করে থাকেন তাহলে আপনার জন্য সুখবর আছে। পেজের আয়ের পথ কিন্তু ফেসবুক গ্রুপে শেয়ারের মাধ্যমে সুগম করা সম্ভব। প্রথমত আপনার ফেসবুক পেজ যদি মনেটাইজ হয়, সেক্ষেত্রে পেজের ভিডিও গ্রুপ শেয়ার করে এড এর মাধ্যমে আয় সম্ভব। ফেসবুক পেজের চেয়ে গ্রুপে বেশি রিচ পাওয়া সম্ভব। তাই আপনার পেজ থাকলেও একটি গ্রুপ খুলে কমিউনিটি তৈরি করতে পারেন।

এ সম্পর্কিত আরও পোস্ট

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button
Close
Close