Home / Cooking Tips and Recipes / ঘরে তৈরি আদা রসুনের পেস্ট ৬ মাসেরও বেশি সময় সংরক্ষণ করবেন যেভাবে

ঘরে তৈরি আদা রসুনের পেস্ট ৬ মাসেরও বেশি সময় সংরক্ষণ করবেন যেভাবে

নিত্যদিনের রান্নায় গুঁড়ো মশলার পাশাপাশি যে বাটা মশলাটি সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত হয় তা হল আদা-রসুন বাটা। আদা-রসুন খাবারের স্বাদ বৃদ্ধি করে থাকে। তবে এই বাটা মশলা রোজ রোজ তৈরি করা সময় সাপেক্ষ বিষয়।আজকাল প্রায় সকলেই চাকরি করেন, তাড়াহুড়োয় রান্না করতে হলে আদা ও রসুনের খোসা ছাড়িয়ে, তা বাটতে গিয়েই অনেকটা সময় বেরিয়ে যায়।

সে ক্ষেত্রে অনেকগুলো একসঙ্গে বেটে রেখে দিলে ঝঞ্ঝাট মুক্ত থাকা যেতে পারে। কিন্তু এতে আদা-রসুন বাটা তাড়াতাড়ি খারাপ হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। তবে এখানে এমন কিছু উপায় দেওয়া রইল যা মেনে আদা-রসুন বাটা সংরক্ষণ করলে তাড়াতাড়ি নষ্ট হবে না এবং ৬ মাসের বেশি সময় পর্যন্ত ভালো রাখতে পারেবন।

এক থেকে ২ মাস পর্যন্ত স্টোর করার জন্য

আদা ও রসুনের খোসা ছাড়িয়ে মিক্সারে দিন। এতে ২ চামচ সরষের তেল দিয়ে দিন। জল ব্যবহার করবেন না। জল ছাড়াই এটিকে মিক্সারে ভালো করে বেটে নিতে হবে। তার পর এতে সামান্য নুন মিশিয়ে এয়ার টাইট কন্টেনারে ভরে ফ্রিজে রেখে দিন। এ ভাবে এক-দুই মাস পর্যন্ত আদা-রসুন বাটা ব্যবহার করতে পারবেন।

চার থেকে পাঁচ মাস পর্যন্ত স্টোর করার জন্য আদা ও রসুনের মধ্যে সরষের তেল মিশিয়ে ভালো করে বেটে নিন। এর পর এতে নুন মিশিয়ে নিন। চামচের সাহায্যে আইস ট্রে-তে ভরে দিন এই আদা, রসুন বাটাকে। প্লাস্টিক র‌্যাপার দিয়ে ট্রেটিকে মুড়ে জিপ পলিব্যাগে ভরে দিন। ঠান্ডা হওয়ার জন্য ফ্রিাজারে রাখুন। এর পর প্রয়োজন মতো আদা-রসুন বাটার কিউবটি রান্নায় ব্যবহার করুন।

ছয় মাসের বেশি স্টোর করার জন্য

৬ মাসের বেশি সময়ের জন্য আদা ও রসুন বাটা স্টোর করতে চাইলে এতে দু চামচ সরষের তেল মিশিয়ে বেটে নিন। নুন মেশানোর পর তিন-চার চামচ সাদা ভিনিগার মেশাতে হবে।এবার কোনও জিপ পলিব্যাগ বা এয়ার টাইট কন্টেনারে ভরে ফ্রিজারে রেখে দিন। এ ভাবে রাখলে ৬ মাসের বেশি সময় এই আদা ও রসুন বাটা ব্যবহার করা যাবে।

About ADMIN

Check Also

ইলিশ পোলাও

ইলিশ গ্রেভী তৈরিঃ • ইলিশ মাছ: বড় ৮ টুকরা • টকদইঃ ২টেবিল চামচ • পিঁয়াজ …

Leave a Reply

Your email address will not be published.