Home / Lifestyle / একগুঁয়ে বাচ্চারাই পেশাজীবনে বেশি সফল হয়

একগুঁয়ে বাচ্চারাই পেশাজীবনে বেশি সফল হয়

শিশুদের লালনপালন করতে সব বাবা-মায়েরই কম-বেশি কষ্ট হয়ে থাকে। তাদের দুষ্টুমি, কথা না শোনা, না খাওয়া, পড়াশোনায় মনোযোগী না হওয়া ইত্যাদি সবকিছু নিয়ন্ত্রণে আনতে বাবা-মাকে অনেক হয়রানির শিকার হতে হয়। তবে সব বাচ্চারা এমন স্বভাবের হয় না। কেবলমাত্র কিছু একগুঁয়ে বাচ্চাদের এই স্বভাব থাকে। যারা বাবা-মা’র অবাধ্য সন্তান বলেও পরিচিত। তাইতো একগুঁয়ে বাচ্চাদের ভবিষ্যৎ নিয়ে বাবা-মা’র চিন্তার শেষ থাকে না।

এদিকে, যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল লাইব্রেরি অব মেডিসিনের প্রকাশিত এক গবেষণায় বলা হয়েছে, একগুঁয়ে বাচ্চারাই বড় হওয়ার পর পেশাজীবনে সফল হয় বেশি। ছয়জন বিজ্ঞানী ৯ থেকে ৪০ বছর বয়সী ৭০০’রও বেশি মানুষের ওপর এই জরিপ চালান। ডেভেলপম্যান্ট সাইকোলজি জার্নালে ২০১৫ সালে গবেষণাটি প্রকাশিত হয়।

গবেষকরা জরিপে অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে নিয়ম ভাঙার প্রবণতা, অধিকারের বোধ, বাবা-মায়ের সঙ্গে স্পর্ধা দেখানোর প্রবণতা এবং তারা পড়াশোনায় কতটা সময় ব্যয় করেছিলেন তাতে বিশেষ মনোযোগ দেন গবেষণাকারীরা।

গবেষণা শেষে গবেষকরা জানান, যারা শিশু বয়সে অভিভাবকদের অবাধ্য ছিল পেশাজীবনে এসে তারাই বেশি বেতনের চাকরি করছে। তবে অবাধ্য হওয়ার সঙ্গে বেশি বেতনের সম্পর্কটা কোথায় সেটির ব্যাখ্যা দিতে পারেননি গবেষকরা।

জরিপে অংশ নেয়া নিয়মভাঙা এই ব্যক্তিরা বেশি বেতনের চাকরি করছে কারণ শিক্ষাজীবন থেকেই তাদের মধ্যে প্রতিযোগিতামূলক মনোভাব ছিল এবং এরফলে প্রাপ্তবয়স্ক হিসেবে চাকরির বাজারে তাদের চাহিদা বেড়ে যায়। তবে অর্থোপার্জনের জন্য এই শ্রেণির ব্যক্তিদের কারো কারো যে অসৎ পথে পা বাড়ানোর সম্ভাবনাও আছে জরিপে সেটিও নাকচ করে দেননি গবেষকরা।

About admin2

Check Also

বাচ্চার জন্য জরুরী পুষ্টি উপাদান

পুষ্টির ঘাটতি থাকলে বাচ্চার বিকাশ ধীরে হয় এবং বাচ্চার বিভিন্ন সমস্যা দেখা দেয়। আসুন জেনে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.