Home / Cooking Tips and Recipes / রান্নায় কম তেলের ব্যবহার

রান্নায় কম তেলের ব্যবহার

ঢাকা : পুষ্টি চাহিদার মধ্যে অন্যতম একটি হচ্ছে তেল। দেহের শক্তির চাহিদা পূরণের ক্ষেত্রে একটি বড় অংশ পূরণে সাহায্য করে থাকে তেল। দেহের প্রয়োজনীয় ক্যালরি, ফ্যাটি এসিড পাওয়া যায় এই তেল থেকে।

পাশাপাশি ভিটামিন এ, ডি, ই, কে পরিশোষণেও সাহায্য করে। এই তেল, এন্টি অক্সিডেন্টের উৎস হিসেবে ভূমিকা পালন করে থাকে।এছাড়া নানাবিধ স্বাস্থ্যগত উপকারিতা রয়েছে তেলের; কিন্তু এসব স্বাস্থ্যগত উপকারিতা পেতে হলে অবশ্যই পরিমিত পরিমাণে ব্যবহার করতে হবে রান্নায়। পাশাপাশি রান্নার পদ্ধতিও হতে হবে সঠিক।এ দিকে অতিরিক্ত তেল খেলে পেটে সমস্যা দেখা দিতে পারে।

সৃষ্টি হয় হজমের সমস্যা। অনেক সময় এর প্রভাব পড়ে হার্টেও। অতিরিক্ত তেল গ্রহণে অতিরিক্ত ওজন, রক্তের অতিরিক্ত চর্বি ও হৃদরোগসহ বিভিন্ন ধরনের রোগের ঝুঁকি বেড়ে যায়।সে জন্য রান্নায় পরিমিত পরিমাণে তেল ব্যবহার করে রান্না সুস্বাদু করার জন্য বেশকিছু পদ্ধতি মেনে চলতে হবে-রান্নায় তেল দেওয়ার সময় চা চামচ ব্যবহার করুন। বড় তেলের পাত্র থেকে ঢেলে তেল দেওয়া বাদ দিয়ে দিন।

আগের সময় নানি, দাদিরা রান্নায় কম তেল ব্যহারের যে কৌশলগুলো মেনে চলত, সেগুলো মেনে রান্না করতে চেষ্টা করুন। এতে স্বাদ অতুলনীয় হবে। তেলে মসলা দিয়ে কষিয়ে রান্নার পরিবর্তে সব উপকরণ মেখে একসাথে চুলায় চাপিয়ে দেওয়া, রান্না শেষে তেল ব্যবহার করা ইত্যাদি পদ্ধতি এর মধ্যে অন্যতম।যারা শাক-সবজি একেবারেই তেল ছাড়া খেতে পারেন না, তারা প্রথমে সেগুলোকে ভাপিয়ে নিয়ে তারপর সামান্য তেলের পেঁয়াজ, রসুন ভেজে সবজিটা তার মধ্যে গড়িয়ে নিতে পারেন।শাক-সবজি থেকে বেশি পুষ্টি পেতে চাইলে, সেগুলো সালাদ করে খেতেও পারেন।

সালাদে কয়েক ফোঁটা অলিভ অয়েল মিশিয়েও খাওয়া যেতে পারে। সবজিতে সব মসলা ও পানি দিয়ে সেদ্ধ করার পর কয়েক ফোঁটা তেল শেষে দিয়ে দিলেও রান্নাটা দারুণ আকর্ষণীয় করা যায়।খাবারকে ডুবো তেলে ভাজার পরিবর্তে বেক করুন, গ্রিল করুন বা সতে করুন।

এটি পুষ্টিগুণ বজায় রেখে আপনার রেসিপিগুলোকে দেখতে অকর্ষণীয় লাগবে এবং স্বাদকে দুর্দান্ত করে তুলবে।রোস্টিং প্যানে করা খাবারগুলো দেখতে আকর্ষণীয় হয় এবং স্বাদেও অতুলনীয়। তাই রান্নার কাজে এগুলো ব্যবহার করে তেল ছাড়া রান্না করতে পারেন।উচ্চ তাপের পরিবর্তে মৃদু আঁচে ঢেকে রান্না করুন।

এতে পুষ্টিগুণ ঠিক থাকবে এবং কম তেল দিলেও তা পুড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা তৈরি করবে না।খাবার রান্নার পূর্বে তেল বাদে সব মসলা দিয়ে ২-৩ ঘণ্টা ম্যারিনেট করে রাখুন। এতে না কষিয়ে কম তেলে রান্না করলেও খাবারের মসলা ভালো মতো ঢুকবে এবং খাবার একই রকম সুস্বাদু মনে হবে।

About ADMIN

Check Also

ইলিশ পোলাও

ইলিশ গ্রেভী তৈরিঃ • ইলিশ মাছ: বড় ৮ টুকরা • টকদইঃ ২টেবিল চামচ • পিঁয়াজ …

Leave a Reply

Your email address will not be published.